ঢাকা ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষেপেছে ভারত

মার্কিন নেতৃত্বাধীন চীনকে ঠেকানোর জোট কোয়াডের অন্যতম সহযোগী এবং ঘনিষ্ঠ মিত্র হচ্ছে ভারত। সেই ভারতই এবার যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষুব্ধ ও অসন্তুষ্ট।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই অসন্তুষ্টির কারণ হলো- পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের যন্ত্রাংশ সরবরাহ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। আর তাতেই যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ওয়াশিংটনে কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে নিজেদের অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে ভারত।

খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাস দমন কার্যক্রমে অংশীদারত্ব রয়েছে। এ ছাড়া ইউক্রেনের সমর্থনে পাকিস্তান গোলাবারুদ পাঠিয়েছে। ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যুত করার সময় সামরিক বাহিনী কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করেনি, ভারতের সাথে সীমান্তে তেমন কোনো সমস্যায় জড়ায়নি পাকিস্তান। এসবের পুরস্কার হিসেবে পাকিস্তানকে ৪৫০ মিলিয়ন ডলারের এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের যন্ত্রাংশ দিচ্ছে বাইডেন প্রশাসন।

ভারতের আশঙ্কা থাকায় ওয়াশিংটন নয়াদিল্লিকে আশ্বস্ত করে বলেছে, ইসলামাবাদকে এই সহায়তা দেওয়ার বিষয়টি ভারতকে কোনোভাবে প্রভাবিত করবে না বা উপমহাদেশের সামরিক ভারসাম্যে পরিবর্তন আনবে না।

কারণ যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া সর্বশেষ এই প্যাকেজে শুধু এফ-১৬ যুদ্ধবিমানগুলো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কিছু সহায়ক যন্ত্রাংশ দেয়া হচ্ছে। এতে তাদের নতুন কোনো অস্ত্র বা ক্ষেপণাস্ত্র দেয়া হচ্ছে না।

তবে নয়াদিল্লি যুক্তরাষ্ট্রের এই ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট হয়নি। তাদের আশঙ্কা ২০১৯ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি যেমন পাকিস্তানের সেনারা এফ-১৬ ব্যবহার করে ভারতের বালাকোটে হামলা চালিয়েছিল, মার্কিন এই সহায়তার কারণে ভবিষ্যতেও তারা এই যুদ্ধবিমান ব্যবহার করে ভারতের হামলা চালাতে পারে।

এদিকে ভারতের এই আচরণে ক্ষুব্ধ হয়েছে ইসলামাবাদও। তারা বলছে, এই সহায়তা বর্তমান এবং ভবিষ্যতের সন্ত্রাসবাদের হুমকি মোকাবেলায় ইসলামাবাদের সক্ষমতা বজায় রাখার জন্য প্রয়োজন।

পাক কূটনীতিকরা পাল্টা মন্তব্য করেন, ইউক্রেন সঙ্কটের প্রেক্ষাপটেও ভারত যে রাশিয়ার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ তেল কিনছে আমরা সে বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের উত্তর শুনতে চাই।

Tag :
জনপ্রিয়

মাদারদিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষেপেছে ভারত

প্রকাশের সময় : ১০:০৯:৪৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

মার্কিন নেতৃত্বাধীন চীনকে ঠেকানোর জোট কোয়াডের অন্যতম সহযোগী এবং ঘনিষ্ঠ মিত্র হচ্ছে ভারত। সেই ভারতই এবার যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষুব্ধ ও অসন্তুষ্ট।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই অসন্তুষ্টির কারণ হলো- পাকিস্তানকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের যন্ত্রাংশ সরবরাহ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। আর তাতেই যুক্তরাষ্ট্রের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ওয়াশিংটনে কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে নিজেদের অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে ভারত।

খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাস দমন কার্যক্রমে অংশীদারত্ব রয়েছে। এ ছাড়া ইউক্রেনের সমর্থনে পাকিস্তান গোলাবারুদ পাঠিয়েছে। ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যুত করার সময় সামরিক বাহিনী কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করেনি, ভারতের সাথে সীমান্তে তেমন কোনো সমস্যায় জড়ায়নি পাকিস্তান। এসবের পুরস্কার হিসেবে পাকিস্তানকে ৪৫০ মিলিয়ন ডলারের এফ-১৬ যুদ্ধবিমানের যন্ত্রাংশ দিচ্ছে বাইডেন প্রশাসন।

ভারতের আশঙ্কা থাকায় ওয়াশিংটন নয়াদিল্লিকে আশ্বস্ত করে বলেছে, ইসলামাবাদকে এই সহায়তা দেওয়ার বিষয়টি ভারতকে কোনোভাবে প্রভাবিত করবে না বা উপমহাদেশের সামরিক ভারসাম্যে পরিবর্তন আনবে না।

কারণ যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া সর্বশেষ এই প্যাকেজে শুধু এফ-১৬ যুদ্ধবিমানগুলো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কিছু সহায়ক যন্ত্রাংশ দেয়া হচ্ছে। এতে তাদের নতুন কোনো অস্ত্র বা ক্ষেপণাস্ত্র দেয়া হচ্ছে না।

তবে নয়াদিল্লি যুক্তরাষ্ট্রের এই ব্যাখ্যায় সন্তুষ্ট হয়নি। তাদের আশঙ্কা ২০১৯ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি যেমন পাকিস্তানের সেনারা এফ-১৬ ব্যবহার করে ভারতের বালাকোটে হামলা চালিয়েছিল, মার্কিন এই সহায়তার কারণে ভবিষ্যতেও তারা এই যুদ্ধবিমান ব্যবহার করে ভারতের হামলা চালাতে পারে।

এদিকে ভারতের এই আচরণে ক্ষুব্ধ হয়েছে ইসলামাবাদও। তারা বলছে, এই সহায়তা বর্তমান এবং ভবিষ্যতের সন্ত্রাসবাদের হুমকি মোকাবেলায় ইসলামাবাদের সক্ষমতা বজায় রাখার জন্য প্রয়োজন।

পাক কূটনীতিকরা পাল্টা মন্তব্য করেন, ইউক্রেন সঙ্কটের প্রেক্ষাপটেও ভারত যে রাশিয়ার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ তেল কিনছে আমরা সে বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের উত্তর শুনতে চাই।