শিরোনাম
নন্দীগ্রামে সাংবাদিকদের সাথে মেরিন ক্যাপ্টেন সারোয়ার সোহেলের মতবিনিময় পদ্মা সেতুতে দুই বছরে ১৬০০ কোটি টাকা টোল আদায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সফররত চীনের কমিউনিস্ট পার্টির মন্ত্রীর সাক্ষাৎ রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সংশয় সব কেজি স্কুল নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে: সচিব গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি ১০ জুলাই পরীমণির সঙ্গে রাত-যাপন : বাধ্যতামূলক অবসরে সেই পুলিশ কর্মকর্তা গৃহবধূকে হত্যা করে আত্মহত্যা হিসেবে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে রাসেলস ভাইপার নিয়ে ‘আতঙ্ক’ নয়, প্রয়োজন সতর্কতা দিনাজপুরে মোগল সম্রাটের পরগনা ঘোড়াঘাটে ঘোড়াশালসহ ঐতিহাসিক দুর্গ বিলুপ্তির পথে
মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪
মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪

২০২৯ সাল পর্যন্ত নগদ সহায়তা অব্যাহত চান ব্যবসায়ীরা

আলোকিত সকাল প্রতিবেদক
প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | অনলাইন সংস্করণ
Image

বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার অধীনে সরকারের ২০২৬ সাল পর্যন্ত তৈরি পোশাক ব্যবসায়ীদের নগদ সহায়তা দেওয়ার কথা। ব্যবসায়ীরা ২০২৯ সাল পর্যন্ত এ সহায়তা অব্যাহত চান। নগদ সহায়তার কারণেই দেশের এ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক ক্রাইসিসেও তারা টিকে আছেন বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।


এছাড়া তৈরি পোশাক রপ্তানির বিপরীতে প্রযোজ্য উৎসে করহার ১ শতাংশ থেকে কমিয়ে আগের মতো শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ নির্ধারণ করাসহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে একাধিক দাবি জানান তৈরি পোশাকখাতের ব্যবসায়ী নেতারা। শনিবার (২৫ মে) প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি এস এম মান্নান (কচি), ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি নির্বাচিত মাহবুবুল আলম। এসময় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানও উপস্থিত ছিলেন।


এফবিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা  বলেন, গতকাল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়েছে। ডলার সংকটসহ সম্প্রতি ব্যবসায়ীরা কী ধরনের চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছেন, বাজেট সামনে রেখে ব্যবসায়ীদের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সব কথা মনোযোগ দিয়ে শুনেছেন।




আয়কর আইন অনুযায়ী, রপ্তানিখাতের উৎসে কর ১ শতাংশ নির্ধারিত। তবে ব্যবসায়ীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে নানা সময়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করে এই করহার ছাড় দেওয়া হয়েছে।


২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে তৈরি পোশাকসহ সব ধরনের পণ্য রপ্তানির ওপর উৎসে কর ১ শতাংশ কেটে রাখার আদেশ জারি করা হয়। পরে পোশাক রপ্তানিকারকদের দুই সংগঠন বিজিএমইএ, বিকেএমইএসহ অন্য ব্যবসায়ী সংগঠনের দাবির মুখে ওই অর্থবছরের মাঝামাঝি সময়ে এসে সেটা কমিয়ে দশমিক ২৫ শতাংশ নির্ধারণ করে এনবিআর। এর আগে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে দশমিক ৭০ শতাংশ উৎসে কর দেন রপ্তানিকারকরা।


এ প্রসঙ্গে বিজিএমইএ সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) বলেন, উৎসে কর যেটা এখন ১ শতাংশ আছে, সেটা দশমিক ৫০ শতাংশ করার প্রস্তাব করেছি।



এর আগে গত মার্চে এনবিআরের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনায় পোশাক রপ্তানির বিপরীতে প্রযোজ্য উৎসে করহার ১ শতাংশ থেকে কমিয়ে আগের মতো শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ নির্ধারণ করে তা আগামী পাঁচ বছর কার্যকর রাখার দাবি জানান রপ্তানিকারকরা। পাশাপাশি পোশাক শিল্পের সক্ষমতা বাড়াতে নগদ সহায়তার ওপর আয়কর কর্তনের হার ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করার দাবি জানানো হয়। যদিও ২০২৯ সাল নাগাদ এই প্রণোদনা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।


চলতি বছরের শুরুতে পোশাকসহ ৪৩টি খাতে পণ্য রপ্তানিতে নগদ সহায়তা কমায় সরকার। ২০২৬ সালে স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উত্তরণ হবে। এ লক্ষ্যে, পর্যায়ক্রমে সব ধরনের রপ্তানিতে প্রণোদনা কমানোর অংশ হিসেবে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আগে রপ্তানি আয়ের ওপর ১ শতাংশ থেকে ২০ শতাংশ পর্যন্ত নগদ সহায়তা দেওয়া হতো। এতে রপ্তানিকারকরা উৎসাহিত হতেন।


বাংলাদেশ ব্যাংকের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, প্রণোদনার সর্বোচ্চ হার ১৫ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। এটি চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত প্রযোজ্য হবে। নতুন নির্দেশনায় অনুযায়ী তৈরি পোশাক খাতে দশমিক ৫০ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা পাচ্ছেন রপ্তানিকারকরা, যা আগে ছিল ১ শতাংশ।


কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানায়, এলডিসি গ্র্যাজুয়েশন পরবর্তীসময়ে রপ্তানি প্রণোদনা বা নগদ সহায়তা সম্পূর্ণভাবে একত্রে প্রত্যাহার করা হলে রপ্তানিখাত চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে পারে। সেজন্য সরকার এখন থেকেই বিভিন্ন ধাপে নগদ প্রণোদনার হার অল্প অল্প করে কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।



এ প্রসঙ্গে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘সরকার ২০২৬ সাল পর্যন্ত নগদ সহায়তা দিতে পারে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার আন্ডারে। সেক্ষেত্রে আমাদের বিকল্প নগদ সহায়তা দেওয়ার আগ পর্যন্ত ২০২৯ সালের আগে যেন নগদ সহায়তা প্রত্যাহার না করা হয়। কারণ নগদ সহায়তার কারণে আমরা নতুন বাজার তৈরি করতে পেরেছি। আমাদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হয়েছে। আজ যে অর্থনৈতিক ক্রাইসিসে টিকে আছি, তা এই নগদ সহায়তার কারণে।’


তিনি বলেন, ‘২০০৯ সাল থেকে বৈশ্বিক মন্দা আমরা মোকাবিলা করছি। নগদ সহায়তার টাকায় নতুন বাজার তৈরি করতে পেরেছি, নানান সহযোগিতা পেয়েছি।’


এছাড়া অর্থনৈতিক অঞ্চল, শিল্প এলাকার বাইরের আর কোনো শিল্পপ্রতিষ্ঠানকে বিদ্যুৎ-গ্যাস সংযোগ না দেওয়া এবং গ্যাস-বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকলে শিল্প মালিকদের ঋণ না দেওয়ার সিদ্ধান্তটি পুনর্বিবেচনা করার অনুরোধ জানানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে।


বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘হঠাৎ গ্যাস, বিদ্যুৎ, ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত পুনরায় বিবেচনা করার অনুরোধ করেছি। এর মধ্যে অনেক ব্যবসায়ী সেখানে ৫০ থেকে ৮০ শতাংশ বিনিয়োগ করেছেন। আমাদের কোনো গ্রেস পিরিয়ড দেওয়া হয়নি।’


‘আমাদের ফ্যাক্টরিগুলো শিল্পাঞ্চলে হবে। কিন্তু আমরা সেগুলো বুঝে পাচ্ছি না। গ্যাস-বিদ্যুৎসহ সব মিলিয়ে আরও ২-৩ বছর লাগবে। আমাদের যেহেতু ২-৩ বছর আরও লাগবে, এরই মধ্যে যে বিনিয়োগ করেছি সেগুলোর কী হবে? বিভিন্ন সুযোগও প্রয়োজন। আমরা শিল্পাঞ্চলে যেতে চাই। সেখানে গেলে আমরা বিভিন্ন ধরনের সুবিধা পাবো।’


তিনি বলেন, ‘সবচেয়ে বড় যে অর্থনৈতিক অঞ্চল মীরসরাই, সেটা এখনো প্রস্তুত নয়। আরও ২-৩ বছর লাগবে। রাস্তাঘাট হয়নি সেখানে। সব ঠিক করে আমাদের বুঝিয়ে দিলে আমরা ভবন করবো, সেটাপ করবো। এতে আরও সময় লাগবে।’


প্রস্তাবে পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘মীরসরাইয়ে তো আর জায়গা নেই। এখন শিল্পায়ন হচ্ছে, মানুষ শিল্পাঞ্চলে বিনিয়োগ করতে চায়। আপনি কেন বিনিয়োগ করতে দেবেন না। তাহলে শিল্পাঞ্চল গড়ে দিন আমরা সেখানে যাবো। আমাদের শিল্পাঞ্চলের স্বার্থে, বিনিয়োগের স্বার্থে এটা বিবেচনা করা প্রয়োজন।’



নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এনবিআরের এক কর্মকর্তা বলেন, পোশাকশিল্প দেশের শীর্ষ রপ্তানি আয় অর্জনের খাত। সরকার এক শিল্পের প্রসারে দীর্ঘদিন ধরেই নানান সুবিধা দিয়ে আসছে। এবারও তাদের প্রস্তাব বিবেচনা করে বাজেট প্রণয়ন করা হয়েছে।


আরও খবর




নন্দীগ্রামে সাংবাদিকদের সাথে মেরিন ক্যাপ্টেন সারোয়ার সোহেলের মতবিনিময়

পদ্মা সেতুতে দুই বছরে ১৬০০ কোটি টাকা টোল আদায়

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সফররত চীনের কমিউনিস্ট পার্টির মন্ত্রীর সাক্ষাৎ

রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সংশয়

সব কেজি স্কুল নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে: সচিব

গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি ১০ জুলাই

পরীমণির সঙ্গে রাত-যাপন : বাধ্যতামূলক অবসরে সেই পুলিশ কর্মকর্তা

গৃহবধূকে হত্যা করে আত্মহত্যা হিসেবে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

রাসেলস ভাইপার নিয়ে ‘আতঙ্ক’ নয়, প্রয়োজন সতর্কতা

দিনাজপুরে মোগল সম্রাটের পরগনা ঘোড়াঘাটে ঘোড়াশালসহ ঐতিহাসিক দুর্গ বিলুপ্তির পথে

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি দেওয়ার সিদ্ধান্ত বিএনপির

বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশের বিদায়, সেমিতে আফগানিস্তান

রাসেলস ভাইপারে মৃত্যুরোধে পর্যাপ্ত অ্যান্টিভেনম সরবরাহ চেয়ে নোটিশ

জুনিয়র ইনস্ট্রাক্টর পদে নিয়োগ সম্পন্নের দাবি ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের

যারাই দুর্নীতিবাজ তারাই শেখ হাসিনার ঘনিষ্ঠ লোক: রিজভী

বেনজীরের রিসোর্টের পুকুর থেকে গোপনে মাছ বিক্রির চেষ্টা, দুদকের মামলা

বাড়ীর কাছে পেয়ে সাংবাদিক বিশ্বজিৎ এর ওপর হামলা, হামলাকারী মিশু গ্রেপ্তার

পাবনার চিনাখড়া গোরস্থানের পাঁচটি কবর থেকে কঙ্কাল চুরি

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি, সম্পাদকের সাক্ষর জাল করে কমিটি গঠন:

নিজ প্রতিষ্ঠান নিয়ে শিক্ষার্থীদের অন্তহীন অভিযোগ! ভরসা অতিথি শিক্ষক

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে ৮ কিলোমিটার যানজট

আক্কেলপুরে বাস চালককে জরিমানা করায় পথ অবরোধ

নিখোঁজ সংবাদঃ

ঘাটাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই

শেরপুরে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বসতবাড়ি ভাঙচুর করে জায়গা দখলের অভিযোগ

ঢাকা জেলার শ্রেষ্ঠ এস আই গজারিয়ার শাহ আলম

কণ্ঠশিল্পী শরীফের গৌরবময় পথচলা

দিনাজপুরে শ্যামলী পরিবহনের ধাঁক্কায় এ্যাম্বুলেন্স চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু

কালকিনিতে বাজার কমিটির সভাপতির পায়ের রগ কর্তন

কালের কণ্ঠের দেশসেরা সাংবাদিকের উপর হামলা বিএফইউজেসহ বিভিন্ন মহলের প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড়


এই সম্পর্কিত আরও খবর

পদ্মা সেতুতে দুই বছরে ১৬০০ কোটি টাকা টোল আদায়

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সফররত চীনের কমিউনিস্ট পার্টির মন্ত্রীর সাক্ষাৎ

রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সংশয়

সব কেজি স্কুল নিবন্ধনের আওতায় আনা হবে: সচিব

পরীমণির সঙ্গে রাত-যাপন : বাধ্যতামূলক অবসরে সেই পুলিশ কর্মকর্তা

রাসেলস ভাইপার নিয়ে ‘আতঙ্ক’ নয়, প্রয়োজন সতর্কতা

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি দেওয়ার সিদ্ধান্ত বিএনপির

জুনিয়র ইনস্ট্রাক্টর পদে নিয়োগ সম্পন্নের দাবি ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের

যারাই দুর্নীতিবাজ তারাই শেখ হাসিনার ঘনিষ্ঠ লোক: রিজভী

দিল্লি সফর অত্যন্ত ফলপ্রসূ: প্রধানমন্ত্রী